মেঘ, পাহাড়-পর্বত এবং ঝরণার রাজ্যে..

উত্তম দাস সৈকত, Chartered Accountant, MBA (AIS), JNU.

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছিলেন “দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া, ঘর হতে দুই পা ফেলিয়া…”।

সিলেট থেকে শিলং ঘুরতে আর দেখতে যাবার ক্ষেত্রে সম্ভবত কবিগুরুর এ কথাটি একেবারেই সত্যি। বাংলাদেশ শুধু নয়, সিলেটেও এমন লোকের সংখ্যা হাতে গোণা যারা মাত্র চার ঘন্টা দূরত্বের পথ শিলং গেছেন। অথচ ব্রিটিশ আমলের বেঁচে থাকা মাঝারি গোছের ব্যবসায়ীদের অন্তত দশ জনের একজন শিলং গেছেন ব্যবসা কিংবা ছেলেমেয়ে মানুষ করার কাজে। শিলংয়ের মিশনারী স্কুলগুলোতে লেখাপড়ার সুখ্যাতি ব্রিটিশ আমল থেকে।

ভারতের মেঘালয় রাজ্যেরা রাজধানী শিলং বেশ জনপ্রিয় একটি পর্যটন শহর। প্রায় ৬,০০০ ফিট উচ্চতায় অবস্থিত শিলং শহর এবং তার আশেপাশে দেখার জন্য অনেক সুন্দর জায়গা আছে। বিশেষত যারা পুরো পরিবার নিয়ে স্বল্প খরচে দেশের বাইরে ঘুরতে যান তারা শিলংকে বেছে নিতে পারেন। বাংলাদেশের সিলেট জেলার সাথেই মেঘালয়ের অবস্থান। পৃথিবীর ২য় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় চেরাপুঞ্জিতে, যা মেঘালয় রাজ্যের অন্তর্গত। যারা মেঘ, পাহাড়-পর্বত এবং ঝরণা ভালোবাসেন তাদের জন্য মেঘালয় আদর্শ গন্তব্য। শিলংয়ে ঘুরে বন্ধু সৈকতের তোলা কিছু ছবিঃ

শিলংয়ে প্রধান ভ্রমণস্থলাভিষিক্ত অঞ্চল সমূহঃ

ডাউকি ব্রিজ, ডাউকি ভিলেজ, ওয়াচ টাওয়ার, বড়হিল ফলস, ওয়ার্নক্রান ফলস, লিভিং রুট ব্রিজ, মওলীননোঙ্গ ভিলেজ।

নুকায়কালী ফসল, মৌসুমী কেইভ, সেভেন সিষ্টার, ওয়াকাভা ফলস।

সুইট ফলস, লাইটলুম, লেডি হায়দোরী পার্ক, ওয়ার্ডস লেক, অল সেন্টস চার্চ, রাজার বাড়ি, বড় পানির লেক/অর্কিড লেক/উমিয়াম লেক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *